Hello Testing Bangla Kobita

প্রতি মাসে দ্বিতীয় রবিবার

Advertisement

2nd Year | 3rd Issue

রবিবার, ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | Sunday, 8th August 2021

ক বি তা  ভা ব না

এই সংখ্যায় চীনের কবি

য়ি ন   ঝি য়া উ য়া ন

inn

অথবা বুদবুদের মতো...

মেয়েটি জানতই না যে দীর্ঘদিন থেকে আমার ওপর নজর রাখা হচ্ছে, আমি খেয়াল করেছি– গদ্যের চরিত্র তারা, ছিল দুর্বলা আর ফ্যাকাসে, সাবওয়ের ভেতর বিজ্ঞাপনের আলো থেকে ঝলকে উঠে তারা আমার দৃষ্টির গোচর পেরিয়ে হুশ করে চলে যেত, অথবা বুদবুদের মতো ভেসে উঠত মোবাইলের পর্দায়, যা আমায় চকিত করে, তবু একপলকে হাজার হাজার অচেনা মুখের মধ্যে দ্রবীভূত হয়ে যায়। দীর্ঘকবিতা থেকে পলাতক চরিত্রগুলি কিন্তু এর থেকে অনেক জটিল। খুব মনে আছে একদিন রাস্তা পেরোতে গিয়ে একটি লোকের সঙ্গে গা ঘষে গেল, লোকটার মুখের ভাবভঙ্গি দেখে আমি বেশ হকচকিয়ে গেলুম। একেবারে মারমুখী ভ্রূকুটি, কপালের শিরা-টিরা ফুলে ধুন্ধুমার অবস্থা, মনে হল যেন মারাত্মক কোন অভিশাপ ছিল তাঁর মধ্যে। পরে মনে পড়ল, লোকটি আর অন্য কেউ নন, ছিলেন গুন্ট্র্যাম স্তোৎজনার, সারা টাউন দাপিয়ে চলেছেন এলহসপিতাল দে লিঁয়তে, মারিয়েনে বিউফোর্টের খোঁজে।

ডাক্তার মার্কো অসবোর্ণ, সমস্ত কিছুর প্রস্ফুটনকে যিনি বৃন্তের মতোন ধারণ করেন, তাঁর কাজই হল সবকিছুর আদিরূপ হিসেবে সক্রিয় থাকা আর থাকা আমার শক্তির মূল আধার হয়ে। 

(গদ্যাংশটি কবির ‘Twin Flames’ গ্রন্থ থেকে কবি চয়ন করে দিয়েছেন।)

মূল রচনা থেকে ভাষান্তর: অরিত্র সান্যাল

মূল রচনা

She did not know that I had been stalked by them for a long time, which I had noticed- the characters from crisp prose were pale and feeble, who flashed across my eyes swiftly from advertising light boxes in the subway, or pop-up windows in my mobile, which caught me by surprise, but dissolved back into unrecognizable faces in the wink of an eye. But the ones escaping from long poems were never easy to deal with: I still have a sharp recollection of that day when I brushed against a man while crossing the street, and was taken aback by his expression: a belligerent frowning, with veins on his forehead bulging, as if he was a carrier of some fatal curse. I remembered later that he was no other than Guntram Stötzner, striding across town to L’hôpital de Lyon in pursuit of Marilène Beaufort.

Dr. Marco Osborne, the rachis that connects everything blooming in an umbellar order. He functions as their archetype and my primary container of energy.

য়িন ঝিয়াউয়ান একজন আভাঁ গার্দ কবি যিনি গদ্য পদ্যের সীমারেখা অবলীলায় লঙ্ঘন করে মহাকাব্য রচনার লক্ষ্যে স্থির। ২০০৭ সাল থেকে চীনে য়িন Encyclopedic Poetry School –এর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক। সে দেশে  hermaphroditic writing movement –এর মূল হোতা ও সে আন্দোলনের মুখ্য প্রস্তাবক য়িন যে কবিতা লেখেন তার বিষয় রসায়ন, ভূতত্ত্ব, নৃতত্ব, মনোবিজ্ঞান, ইতিহাস, সঙ্গীতশাস্ত্র, ফটোগ্রাফি, আবহাওয়াবিজ্ঞান – সমস্ত কিছু থেকে নিজের উপাদান শুষে নিতে থাকে। Translators Association of China, the Poetry Institute of China and of Beijing Writers’ Association-এর সদস্য য়িনের লেখালেখি ইংরেজি, ফরাসী, জার্মান আর জাপানি ভাষায় অনুদিত, আর তা নানা সময়ে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, কানাডা, জাপান, থাইল্যাণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে। Ephemeral Memories, Beyond the Tzolk’in, Avant-garde Trilogy, and Agent d’ensemencement des nuages (Encyclopedic Poetry School’ 10th anniversary celebration Series)- এই চারটি কাব্যগ্রন্থ-সহ য়িনের প্রকাশিত গ্রন্থ নয়টি।  

আরও পড়ুন...