Hello Testing Bangla Kobita

3rd Year | 6th Issue

রবিবার, ২৬শে কার্তিক, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ | Sunday, 13th Nov 2022

প্রতি মাসে দ্বিতীয় রবিবার

প্রচ্ছদ কাহিনী, ধারাবাহিক গদ্য, ছোটোগল্প, গুচ্ছ কবিতা, কবিতা, প্রবন্ধ, উপন্যাস, স্বাস্থ্য, ফ্যাশান ও আরও অনেক কিছু...

কো থা য়  কি

শান্তিপুরে এই প্রথম "কবিতা উৎসব ও আলোচনাচক্র"

একালের কবিকণ্ঠ ও ধানদূর্বা পত্রিকার যৌথ উদ্যোগে শান্তিপুর কলেজের সহযোগিতায় ২৬ মার্চ ও ২৭ মার্চ বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত দুদিনের কবিতা উৎসব ও আলোচনাচক্র এবং সম্মাননা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান শুরু হয় শান্তিপুর কলেজের আধুনিক প্রেক্ষাগৃহে। শুরুতেই স্বাগত ভাষণ দেন শান্তিপুর কলেজের অধ্যক্ষা ড. চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। এরপর সম্মানিত কবিরা গাছে জল দিয়ে শুরু করেন প্রথম দিনের শুভ উদ্বোধন।

আজীবন কবিতা যাপনের জন্য একালের কবিকণ্ঠ পত্রিকা দীর্ঘ কয়েক বছর উল্লেখযোগ্য কবিদের হাতে অর্পণ করছেন “একালের কবিকণ্ঠ সম্মাননা”।করোনা আবহে দুবছর সম্মান দেওয়া হয়ে ওঠেনি, এবছর ২০২০ সালের “একালের কবিকণ্ঠ সম্মাননা” তুলে দেওয়া হয় বনগাঁ শহরে বসবাসকারী সকলের প্রিয় কবি জলধি হালদার মহাশয়কে। এছাড়া ২০২১ সালের “একালের কবিকণ্ঠ সম্মাননা” তুলে দেওয়া হয় হুগলি জেলার চুঁচুড়া শহরে বসবাসকারী (অনুমাত্রিক পত্রিকার সম্পাদক) কবি দীপক রায়। দুই কবিকে গামছা দিয়ে বরণ করেন তরুণ প্রজন্মের কবিরা এবং সম্মাননা স্মারক, ফুল, মিষ্টি দিয়ে সম্মান জানানো হয়।

কবি জলধি হালদার আন্তরিকতার সঙ্গে বক্তব্য রাখেন, তার উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ গুলি থেকে কয়েকটি কবিতা সকলকে পাঠ করে শোনান। সেই সাথে কবি দীপক রায়ও তার কবিতা যাপনের দু-চার কথা বলেন।


ধানদূর্বা পত্রিকা এবছর (২০২২) থেকে শান্তিপুরের পাঁচজন কবির নামাঙ্কিত স্মৃতি সম্মান প্রদান করার উদ্যোগ নেয়। কবি কৃত্তিবাস ওঝা স্মৃতি সম্মান পেলেন কবি-প্রাবন্ধিক -অধ্যাপক জহর সেনমজুমদার। কবি করুণানিধান বন্দ্যোপাধ্যায় স্মৃতি সম্মান পেলেন কবি-অধ্যাপক বিজয় সিংহ। কবি যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত স্মৃতি সম্মান পেলেন কবি প্রাণেশ সরকার। কবি মোজাম্মেল হক স্মৃতি সম্মান পেলেন কবি-অধ্যাপক মন্দিরা রায়। কবি ফল্গু বসু স্মৃতি সম্মান পেলেন কবি-অধ্যাপক পঙ্কজ চক্রবর্তী। সম্মান প্রাপক পাঁচ কবিকে গামছা দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। তারপর কবিদের হাতে তুলে দেওয়া হয় সম্মান স্মারক , ফুল, মিষ্টি ইত্যাদি। প্রত্যেক কবি তাদের কবিতা যাপনের কথা শুনিয়েছেন, শুনিয়েছেন কবিতা।


এ পর্যন্ত ছিল প্রথম দিনের প্রথম পর্ব। দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় কবিতা পাঠ ও আলোচনা। কবিতা পড়েন দেবজ্যোতি রায় সমরেশ মুখোপাধ্যায় সুব্রত চক্রবর্তী সুব্রত পাল গৌতম হেঁস শ্যামল দেবনাথ প্রাবন ভৌমিক রামপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় দেবাশীষ সিংহ সুভাষ বিশ্বাস উৎপল বসাক অনিমেষ মণ্ডল।প্রত্যেক আলোচক তিনজন কবির কবিতার ওপর কবিতাবিষয়ক আলোচনা উপস্থাপন করেন। আলোচকদের মধ্যে ছিলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক-প্রাবন্ধিক শান্তনু মণ্ডল, কবি-সম্পাদক-প্রকাশক গৌতম মণ্ডল, প্রাবন্ধিক শাহিদুর রহমান মণ্ডল, কবি সমিত মণ্ডল।


দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ ২৭ মার্চ রবিবার এক ঝাঁক কবির কবিতা পাঠ দিয়ে শুরু। কবিতা পড়েন সোনালী ঘোষ বিশ্বজিৎ সমরেশেন্দু বৈদ্য প্রবীর চক্রবর্তী সব্যসাচী মজুমদার প্রতাপ মুখোপাধ্যায় বিশ্বজিৎ কর্মকার সোমা প্রামাণিক সুতনু হালদার সৌরভ বর্ধন প্রতাপ হালদার শুভজিৎ সেন বিমল বিশ্বাস অমিত কুমার বিশ্বাস সায়ন্তনী হোঁড় তাপস মিত্র প্রিয়াঞ্জলি দেবনাথ সহ আরও অনেকে।


সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অভিমান্য পাল ও অসীম সরকার।

আরও পড়ুন...

প্রতি মাসে দ্বিতীয় রবিবার