Hello Testing Bangla Kobita

প্রতি মাসে দ্বিতীয় রবিবার

Advertisement

2nd Year | 2nd Issue

রবিবার, ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | Sunday, 11th July 2021

সিনেমা যখন কবিতা । পর্ব ৫

অ দি তি   ব সু রা য়

aditibasu_hm

ভাঙাচোরা হলেও এই গল্পে জীবন উপচে পড়ে। রংও।

ছবির নাম । দ্যা লাইফ আহেড

পরিচালক । এডোয়ার্ড পন্তি

দেশ । ইতালি

অভিনয় । নাওমি ওয়াটস, আন্ড্রু লিঙ্কন, রেচেল হাউস

মোমো নামের ছেলেটা বড্ড রাগি।  সে স্কুল ড্রপ-আউট। অনাথ মোমোকে নিয়ে তার ফস্টার ফাদার (পালক বাবা) নাজেহাল। সেনেগালের শরণার্থী মোমোকে ইস্কুলে বন্ধুরা খ্যাপাতো খুব। একদিন সেও রেগে গিয়ে,  এক সহপাঠীর ঘাড়ে পেন্সিল ঢুকিয়ে দেয়। সেই থেকে ইস্কুল বন্ধ। ছিনতাই করতে শিখে গেছে সে অনেক আগে থেকে। মাদাম রোসাও তাকে ছিনতাইবাজ হিসেবেই জানতেন। মাদাম রোসা প্রখর ব্যক্তিত্বের মালকিন।  মাদাম রোসাকে ভয় পায় না এমন লোক খুব কম। যৌবনে মাদাম বেশ্যাবৃত্তি করে উপার্জন করতেন। ইদানীং ওয়ার্কিং মেয়েদের বাচ্চাদের পয়সার বিনিময়ে দেখেশুনে রাখাই তাঁর কাজ। ইহুদি রোসা, হলোকাস্ট থেকে বেঁচে ফিরেছিলেন এককালে। তাঁর অ্যাপার্টমেন্টের নীচে সেই কুঠুরিতে মাদাম বারবার গিয়ে বসেন। ফস্টার ফাদারের অনুরোধে, মোমোকে কিছু টাকার বিনিময়ে নিজের কাছে রাখতে শুরু করেন তিনি। বৃদ্ধার সঙ্গে কিশোর মোমোর ভারি মায়াবি এক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। 

মৃত মাকে সে খানিক খুঁজে পায় রোসার মধ্যে। দ্য লাইফ আফটার, এক ভাঙাচোরা, অগোছালো সমাজের গল্প বলে। তবে ভাঙাচোরা হলেও এই গল্পে জীবন উপচে পড়ে। রংও। মাদামা রোসার সঙ্গে দেখা যায় লোলাকে। তার মেয়ে, রোসার হেফাজতে থাকে। লসিফ, মোমোর রুমমেট। মায়ের জন্য কাতর লসিফের সঙ্গে গোড়ায় রাগারাগি থাকলেও পরে তাদের ভাব হয়ে যায় – লসিফকে একদিন নিতেও আসেন তার মা। মোমো একা কাঁদে। কাঁদেন  রোসাও। হিটলারের জমানার কালো দিনগুলো স্মৃতিতে ফিরে ফিরে আসে তাঁর। যদিও সেভাবে ছবিতে সেসব অন্ধকারের আলাদা করে উল্লেখ নেই – তবু এক জীবনে কত কীই তো ঘটে! পালটে যায় ক্যানভাস – মোমোকেই দেখা যাক! সেনেগাল থেকে মায়ের সঙ্গে আসা কিশোর – মাকে হারিয়ে অনাথ। ডাঃ কোনের কাছ থেকে মাডাম রোসার কাছে আশ্রয় – ড্রাগ সরবরাহকারী হিসেবে কাজ করা – বারবার এক সিংহীকে স্বপ্নে দেখা – মায়ের জন্য কাতরতা। মাদাম রোসার জীবনও কম বর্ণময় নয়। আপাত কঠোর মাদামের মনের গহনে জমে থাকা ফল্গুর দেখা পায় মোমো।  জীবন আদতে অনির্দিষ্ট এবং অনির্দেশ্য। তাকে পরতে পরতে হারাতে হয় এবং ফিরেও পাওয়া যায়। কিশোর মোমোর সামনে সেই জীবন বাহু বিস্তার করে রইলেও মাদামের আর ততখানি সময় নেই। লোলা ফিরে যায়। মাদামের কবরের পাশে স্বপ্নের সিংহীকে চিরকালের জন্য রেখে, ঘরে ফেরে মোমো। জীবন শুরু হয়। পুনরায়।

আরও পড়ুন...